কায়াকিং, চেনা কাপ্তাইয়ের অচেনা রূপ

কায়াকিং, চেনা কাপ্তাইয়ের অচেনা রূপ

মোজতাবা নাদিম কিছুদিন আগে এক বৃহস্পতিবার সকালে ঘুম ভাঙল বন্ধুর ফোনে। কণ্ঠে উত্তেজনা, ‘বন্ধু প্রস্তুত থাকো, এক দিনের জন্য মাঝি হয়ে যাব আমরা।’ মানে? ওপাশ থেকে জবাব, ‘কাল কাপ্তাই যাব, ওখানে লেকে কায়াকিং চালু হয়েছে। আবার রাতে ফিরে আসব।’ ফোন

বিমুগ্ধ কাপ্তাই লেক, ভ্রমণ সত্যি অসাধারণ

বিমুগ্ধ কাপ্তাই লেক, ভ্রমণ সত্যি অসাধারণ

ফুরোমনের চূড়া থেকে পাখির চোখে মতো দেখা যায় কাপ্তাই লেকের বিস্তৃত জলরাশি। বছরের এই সময়ে নীল জলরাশির কাপ্তাই লেক, স্বচ্ছ নীলাভ জল আর বিস্তৃত দেখে মনে হতে পারে পাহাড়ের মধ্যে সমুদ্রের তীরের পৌঁছে গেছি। বসন্তের বাতাস ছুঁয়ে আছে লেকের নীল

বন মাতানো রাঙামাটি’র দুপপানি ঝরনা

বন মাতানো রাঙামাটি’র দুপপানি ঝরনা

‘পাহাড়’—এই তিন অক্ষরের শব্দটার সঙ্গে জড়িয়ে আছে রহস্য-রোমাঞ্চ আর অজানা আনন্দের শিহরণ। আঁকাবাঁকা সবুজে ঘেরা চিকন পথটা ঠিক কখন যে দম বন্ধ করা সৌন্দর্যের একেবারে মুখোমুখি করে দেবে, তার কোনো ঠিক নেই। এ-গাছের পাতা সরিয়ে, ও-গাছের ডাল বাঁকিয়ে, সামনের আকাশ-সমান

ঘুরে আসতে পারেন অপার সৌন্দর্যের থেগামুখ

ঘুরে আসতে পারেন অপার সৌন্দর্যের থেগামুখ

ফারুখ আহমেদ থেগামুখে যাওয়ার পথে দেখা যাবে প্রকৃতির এমন রূপ। ছবি: লেখক‘নদীর এই বাঁকটা অনেক বেশি মোহময়’—নাদিয়ার মুখের কথা শেষ না হতেই দেখি চিকিৎসক নাজমুল হক নদীর বাঁকের ছবি তোলায় ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন। তারপর যতই সামনে এগিয়েছি, কর্ণফুলী নদীর প্রতিটা

সাজেক ভ্যালি ‘বাংলার দার্জিলিং’

সাজেক ভ্যালি ‘বাংলার দার্জিলিং’

  বাংলাদেশ ও ভারতের মিজোরাম সীমান্ত ঘেঁষা অপার সম্ভাবনার জনপদ সাজেক ভ্যালিতে বসে প্রকৃতির কোলে বসে স্বর্গীয় সময় কাটান পর্যটকরা। দার্জিলিং এর প্রতিচ্ছবি রাঙামাটি জেলার বাঘাইছড়ি উপজেলার সাজেক ভ্যালি। পৃথিবীর এ যেন এক মনোরম ভূ-স্বর্গ। চোখ জুড়ানো নৈসর্গিক সৌন্দর্যের আধার।

কাপ্তাই জাতীয় উদ্যান

কাপ্তাই জাতীয় উদ্যান

কাপ্তাই জাতীয় উদ্যান ১৯৯৯ সালে প্রতিষ্ঠিত। এটি রাঙ্গামাটি জেলার কাপ্তাই উপজেলায় অবস্থিত।  কাপ্তাই জাতীয় উদ্যান এর আয়তন ৫ হাজার ৪৬৪ হেক্টর বা ১৩ হাজার ৫০০ একর প্রায়। হ্রদ, পাহাড়, নদী, খাল, ঝরনা ছাড়াও এ উদ্যানের মূল আকর্ষণ নানা রকম পাখি

নৈসর্গিক সৌন্দর্যের কাপ্তাই হ্রদ

নৈসর্গিক সৌন্দর্যের কাপ্তাই হ্রদ

অপরূপ প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলানিকেতন কাপ্তাই হ্রদ। ২৫৬ বর্গমাইল আয়তনের দক্ষিণ এশিয়ার সর্ববৃহত্ এই কৃত্রিম হ্রদ দেশি-বিদেশি পর্যটকদের অন্যতম আকর্ষণ। উঁচু-নিচু পাহাড়-পর্বত, পাহাড়ি ঝরনাধারা, আঁকাবাঁকা পাহাড়ি রাস্তা, অথৈ পানি আর সবুজের সমারোহ, গাঢ়-সবুজ বন, গাছ-গাছালি ফুল-ফল আর উপজাতিদের জীবনধারা কাপ্তাই লেকের

কাপ্তাইয়ে সবুজ প্রকৃতি দর্শনে বিমোহিত পর্যটক

কাপ্তাইয়ে সবুজ প্রকৃতি দর্শনে বিমোহিত পর্যটক

কাপ্তাই: উপ-শহর কাপ্তাইয়ের সবুজ প্রকৃতি দর্শনে হাজার হাজার পর্যটকের আগমনে মুখর হয়ে উঠছে কাপ্তাই উপজেলার বিভিন্ন পর্যটন স্পটগুলো। প্রকৃতির অপরূপ সৈন্দর্য দর্শনে পর্যটকরা বিমোহিত। শীতের আগমনে পর্যটক আর প্রকৃতিপ্রেমি মানুষের আগমন শুরু হয়েছে এখানে। চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে পর্যটকরা

নৈসর্গিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি রাঙামাটিতে বেড়াতে আসুন শীতে

নৈসর্গিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি রাঙামাটিতে বেড়াতে আসুন শীতে

বিজয় ধর রাঙামাটি: শীত মৌসুমই হলো পাহাড় আর অরণ্যের শহর রাঙামাটিতে বেড়ানোর শ্রেষ্ঠ সময়। রাঙামাটিতে বেড়াতে এসে কখনো মন খারাপ করে বাড়ি ফেরেনা কেউ। প্রতিবছর হাজার হাজার পর্যটকদের পদচারণায় মুখর হয়ে ওঠে পাহাড়ের পাদদেশ। শীতের হিমেল পরশে সজীব হয়ে উঠে পার্বত্য

নৈসর্গিক সৌন্দর্যের কাপ্তাইে যা দেখবেন

নৈসর্গিক সৌন্দর্যের কাপ্তাইে যা দেখবেন

রাঙামাটিঃ উপ-শহর কাপ্তাইয়ের সবুজ প্রকৃতি দর্শনে হাজার হাজার পর্যটকের আগমনে মুখর হয়ে উঠছে কাপ্তাই উপজেলার বিভিন্ন পর্যটন স্পটগুলো। প্রকৃতির অপরূপ সৈন্দর্য দর্শনে পর্যটকরা বিমোহিত। শীতের আগমনে পর্যটক আর প্রকৃতিপ্রেমি মানুষের আগমন শুরু হয়েছে এখানে। চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে পর্যটকরা